পুদিনা পাতার চা এর উপকারিতা এবং চা এর রেসিপি

পুদিনা পাতার চা একটি ঐতিহ্যবাহী চা যা বাংলাদেশ সহ বিশ্বের আরো অনেক দেশে খুবই জনপ্রিয়। পুদিনা পাতা, এবং চিনি নিয়ে গঠিত চা দিনের সব সময় পান যায়। বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অতিথিদের এই চা পরিবেশন করা হয়।

আপনার পেটে বদহজম জাতীয় কোনো সমস্যা থাকলে এই চা সেটি ভালো করতেও সাহায্য করবে।

পুদিনা, মেন্থল, এবং ফ্রুট সেন্টেড পুদিনা পাতা ব্যবহার করে পুদিনা চা প্রস্তুত করতে পারেন। যদিও পুদিনা পাতা দিয়ে তৈরি চা ১০ মিনিটের বেশি সময় ধরে খাওয়া উচিত নয়, কারণ ১০ মিনিট পর এটি তিতো স্বাদ ছড়াতে পারে।

বরফ দেওয়া পুদিনা পাতার চা গরমের দিন আপনাকে অন্য রকম সজীবতা দিবে এবং গরম পুদিনা চা শীতের সময় আপনাকে স্বস্তি দিবে।

এই লিখায় আমি পুদিনা পাতার চা এর উপকারিতা উল্লেখ করবো এবং সেটি কিভাবে প্রস্তুত করবেন তাও তুলে ধরবো।

পুদিনা পাতার চা এর ১০ টি উপকারিতা

১. হজম সমস্যা দূর করতে পারে

পুদিনা পাতার চা গ্যাস্ট্রিক, বদহজমের মতোন অন্যান্য হজমের সমস্যায় উপকার করে।

এক গবেষণায় দেখা গেছে পুদিনার চা আপনার পাচনতন্ত্রকে সচল রাখতে সাহায্য করে এবং এটি পাচনতন্ত্রের নানারকম ব্যথা কমাতেও সক্ষম। এটি মসৃণ পেশীগুলিকে সংকুচিত হতে বাধা দেয়।

বিরক্তিকর পেটের সমস্যায় ভোগে এরকম ৭২ জনের ওপর একটি গবেষণা চালিয়ে দেখা গেছে, পুদিনার তেল ৪ সপ্তাহ ব্যবহারের ফলে পেটের এই সমস্যাগুলি প্রায় ৪০% কমে যায়।

আবারো, প্রায় ২০০০ শিশুর উপর চালানো ১৪ টি ক্লিনিকাল ট্রায়ালের পর্যালোচনায় দেখা গেছে, পুদিনা পাতা পেটের ব্যথার তীব্রতা প্রচুর পরিমাণে হ্রাস করে।

সারসংক্ষেপ
পুদিনার তেল আপনার পাচনতন্ত্রের পেশী স্মুথ করতে এবং হজমের সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে। তাই,পুদিনা পাতার চা ও অনুরূপ উপকার করতে পারে।

২. টেনশনের কারণে সৃষ্ট মাথাব্যথা এবং মাইগ্রেন উপশমে সাহায্য করে

টেনশনের কারনে সৃষ্ট মাথা ব্যাথা ও মাইগ্রেনের ব্যাথা কমাতেও পুদিনা পাতার চা হেল্প করে।

পুদিনার তেল রক্ত প্রবাহ বৃদ্ধি করে।

পুদিনা পাতার চা এর সুগন্ধ পেশী শিথিল করে এবং মাথাব্যথা কমায়, যদিও এর বৈজ্ঞানিক কোনো প্রমাণ নেই। যাইহোক, আপনার কপালে পুদিনার তেল মালিশ মাথা ব্যাথা কমাবে এটি বৈজ্ঞানিক ভাবে প্রমাণিত।

সারসংক্ষেপ
যদিও কোন প্রমাণ নেই যে পুদিনার চা মাথাব্যথার লক্ষণগুলি উপশম করে তবে, গবেষণায় দেখা গেছে যে পুদিনার তেল টেনশনের কারনে সৃষ্ট মাথাব্যাথা এবং মাইগ্রেন কমায়।

৩. শ্বাস ফ্রেশ করতে পারে

আপনার শ্বাস ফ্রেশ করতে পারে বিভিন্ন টুথপেস্ট, মাউথওয়াশ এবং চুইংগাম জাতীয় চকলেটে পুদিনা ও মেন্থল ব্যবহার করা হয় এর গন্ধের জন্য। কারণ এর গন্ধ মুখ ফ্রেস রাখতে সাহায্য করে।

মনোরম গন্ধ ছাড়াও, এর দাঁতের প্ল্যাক সৃষ্টিকারী জীবাণুকে প্রতিহত করার ক্ষমতা রয়েছে। যা আপনার দাঁতকে দীর্ঘ সময় ধরে ভালো রাখতে সহায়তা করবে।

সারসংক্ষেপ
পুদিনার তেলের মধ্যে মুখে বসবাসকারী বিভিন্ন জীবাণুকে ধ্বংস করার ক্ষমতা আছে। তাই পুদিনার চা ও আপনার মুখের জীবাণুকে ধ্বংস করার পাশাপাশি আপনার নিঃশ্বাস সতেজ রাখবে।

৪. সাইনাস থেকে মুক্তি দিতে পারে

পুদিনার অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল, অ্যান্টিভাইরাল এবং অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি বৈশিষ্ট্য রয়েছে। এই কারণে পুদিনা পাতার চা ঠান্ডা এবং এলার্জির কারণে বন্ধ হয়ে যাওয়া সাইনাস থেকে আপনাকে মুক্তি দিতে পারে।

একটি গবেষণা দেখায় যে পুদিনার সক্রিয় যৌগগুলির মধ্যে একটি নাকের গহ্বরে বায়ুপ্রবাহের ধারা স্মুথ করে। তাই, পুদিনা পাতার চা থেকে উৎপন্ন বাষ্প আপনাকে এমন অনুভব করাবে যেনো আপনার শ্বাস প্রশ্বাস নেওয়া আগের চেয়ে আরো সহজ হয়ে গেছে।

সারসংক্ষেপ
যদিও এর পক্ষের প্রমাণ সীমিত তারপরও মেন্থল যুক্ত একটি গরম পানীয় - যেমন মেন্থল/পুদিনার চা আপনাকে কিছুটা সহজ শ্বাস নিতে সহায়তা করবে।

৫. শক্তি বাড়াতে পারে

এটি দিনের ক্লান্তি হ্রাস করে শরীরের এনার্জি লেভেল আপ করে।

আপনি হয়তো ভাবছেন সাধারণ চা থেকেও এটি পাওয়া সম্ভব। হ্যা, পাবেন ! তবে পুদিনা চা টেস্ট করেই দেখুন আলাদা কিছু তো অবশ্যই পাবেন যেমনটা আমি ফিল করি।

সারসংক্ষেপ
এটি আপনার ক্লান্তি দূর করার পাশাপাশি দিনের বেলায় ঘুম ঘুম ভাব থেকেও আপনাকে রক্ষা করবে।যা আপনার সারাদিন ভালো কাটাতে সাহায্য করবে।

৬. মহিলাদের মাসিকের সমস্যা দূর করতে পারে

পুদিনা পেশী শিথিলকারী হিসাবে কাজ করে তাই মাসিকের খিঁচুনি উপশম করতে সহায়তা করে। যদিও পুদিনা চা এই ব্যাপারে কতটুকু কার্যকর তা নিয়ে যথেষ্ট প্রমাণ নেই। তবে এটা সম্ভব যে পুদিনা চায়ের ও একই প্রভাব থাকতে পারে।

সারসংক্ষেপ
পুদিনার চা পান করলে মাসিকের তীব্রতার তীব্রতা এবং সময়কাল কমে যেতে পারে কারণ পুদিনা পেশি শিথিল করতে সাহায্য করে।

৭. ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণের বিরুদ্ধে কার্যকর

যদিও পুদিনা চায়ের ব্যাকটেরিয়া বিরোধী প্রভাব সম্পর্কে তেমন কোনো কোনও তথ্য পাওয়া যায় না, তবে এর তেল কার্যকরভাবে ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধ করে।

একটি গবেষণায়, পুদিনার তেলকে ই-কোলাই, লিস্টেরিয়া এবং সালমোনেলা সহ খাদ্যের আরো সব ব্যাকটেরিয়ার বৃদ্ধি কে প্রতিহত এবং প্রতিরোধ করতে দেখা গেছে।

আরো পড়ুন- চুল, ত্বক এবং স্বাস্থ্যের জন্য পুদিনা পাতার ১৯টি আশ্চর্যজনক উপকারিতা

এর তেল বিভিন্ন ধরণের ব্যাকটেরিয়াকে হত্যা করে যা মানুষকে দ্রুত অসুস্থ করে ফেলতে পারে।

পুদিনা আপনার মুখে থাকা বিভিন্ন ধরণের ব্যাকটেরিয়াও হ্রাস করে।

সারসংক্ষেপ
পুদিনা কার্যকরভাবে বিভিন্ন ধরণের ব্যাকটেরিয়ার বিরুদ্ধে লড়াই করে। তাই ধারণা করা যায় পুদিনা পাতার চা ও অনূরূপ ভাবে কার্যকর।

৮. আরামদায়ক ঘুমে সাহায্য করে

রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে পুদিনার চা হতে পারে একটি উত্তম পছন্দ। এটি স্বাভাবিকভাবে ক্যাফেইন মুক্ত।

পেশী শিথিলকারক হিসাবে পুদিনার ক্ষমতা আপনাকে ঘুমানোর আগে আরাম করতে সহায়তা করবে।

রাতে ফ্রেশ ঘুম হতে সাহায্য করবে। পাশাপাশি সারাদিন ঘুম ঘুম ভাব কাটাতে সাহায্য করবে।

সারসংক্ষেপ
পুদিনার চা ঘুমের জন্য উপকারী। এটি একট ক্যাফেইন মুক্ত পানীয় যা আপনাকে ঘুমের আগে আরাম করতে সহায়তা করবে এবং আরামদায়ক ঘুম উপহার দিবে।

৯. ওজন কমাতে সাহায্য করে

পুদিনার চা স্বাভাবিকভাবে ক্যালোরি-মুক্ত এবং এর একটি মনোরম মিষ্টি স্বাদ আছে, যা আপনার ওজন কমানোর জন্য বিশেষভাবে কার্যকরী।

সারসংক্ষেপ
নিয়মিত পানে এটি আপনার ওজন কমাতে সাহায্য করবে। তাছাড়া আপনার ডায়েট চার্টেও এটি যোগ করতে পারেন।

১০. মনোযোগ বৃদ্ধি করতে পারে

পুদিনা পাতার চা পান করা আপনার মনোযোগ এবং ফোকাস বৃদ্ধি করতে সাহায্য করবে। পাশাপাশি লম্বা সময় কাজ করার ধৈর্য বাড়াতে এবং স্মৃতিশক্তি বাড়াতে এটি কার্যকর।

সারসংক্ষেপ
পুদিনা চা মনোযোগ বাড়ানোর পাশাপাশি স্মৃতিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করবে।

পুদিনা পাতার চা এর পুষ্টিগুণ

পুদিনা পাতায় ভিটামিন সি, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি এবং অন্যান্য ভিটামিন এবং খনিজ থাকে। যদিও, এক কাপ চায়ে এগুলির পরিমাণ খুব কম থাকে। তারপরও এটি অনেক স্বাস্থ্যকর।

পুদিনা পাতার চা রেসিপি

পুদিনা পাতার চা রেসিপি অনেক ধরনের হয়। আপনি আপনার পছন্দ মতো প্রস্তুত করে এটি পান করতে পারেন। তবে আমি এখানে সবচেয়ে সহজভাবে এবং সবচেয়ে কম সময়ে কিভাবে পুদিনা পাতার চা তৈরি করবেন সেটি বলবো।

নিচে ভিডিও দেওয়া আছে সেটি দেখলে আপনার বুঝতে আর কোনো সমস্যা থাকবে না আশা করি।

পুদিনা পাতার চা তৈরি করার উপায়

এক কাপ চা তইরি করার জন্য পরিমাণ ও উপায় নিচে বলা আছে। বেশি পরিমানে তৈরি করতে সবকিছুর পরিমাণ প্রয়োজন মতো বাড়িয়ে নিন।

স্টেপ ১ঃ ১ কাপ পরিমাণ পুদিনা পাতা নিন।

স্টেপ ২ঃ পাতাগুলো ভালো করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন যাতে কোনো ময়লা পাতায় লেগে না থাকে।

স্টেপ ৩ঃ একটি সসপেন অথবা কেটলি/পাতিলে পানি খাওয়ার মগে এক মগ পানি নিন।(আপনি যে পরিমাণ চা বানাবেন সেই মাপে নিন)

স্টেপ ৪ঃ এবার পুদিনাপাতা গুলো সসপেনে ঢেলে দিন এবং ঢাকনা দিয়ে ঢেকে প্রায় ৫ মিনিটের মতো পাতাগুলো সিদ্ধ করে নিন।

স্টেপ ৫ঃ এবার সসপেনের ভিতরে এক চিমটি চা পাতি দিয়ে দিন এবং ১০ সেকেন্ডের মধ্যে চা উঠিয়ে নিন।

স্টেপ ৬ঃ একটি ছাঁকনি দিয়ে ছেঁকে নিন।

আপনি যতটুকু মিষ্টি খেতে চান সেই অনুসারে মধু মিশিয়ে চামচ দিয়ে নাড়িয়ে নিন। যদি মিষ্টি খেতে না চান তাহলে এভাবেই খেতে পারবেন।

প্রয়োজনে নিচের ভিডিওটি দেখুনঃ

শেষ কথা

পুদিনা পাতার চা এবং পুদিনা পাতায় পাওয়া প্রাকৃতিক যৌগগুলি বিভিন্ন উপায়ে আপনার আমার স্বাস্থ্যের উপকার করতে পারে।

যদিও পুদিনা পাতার চা নিয়ে গবেষণা সীমিত, তবুও কয়েকটি গবেষণা পুদিনা চা এর উপকারিতা তুলে ধরে।

এই চা সুস্বাদু, প্রাকৃতিকভাবে মিষ্টি, এবং ক্যাফেইন মুক্ত যা দিনের যে কোনো সময় নিরাপদে খাওয়া যেতে পারে।

পুরো লেখাটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ। আপনার যদি কোথায় বুঝতে সমস্যা থাকে তাহলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানান।উপকৃত হলে শেয়ার করুন।

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published.